সাজা স্থগিত করে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি

0
41

ফৌজদারি কারাবিধি আইনের ৪০১ (১) ধারা অনুযায়ী সাজা স্থগিত করে কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি দাবি করেছেন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম। আজ বৃহস্পতিবার সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির অডিটোরিয়ামে এক সংবাদ সম্মেলনে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের আহবায়ক খন্দকার মাহবুব হোসেন এ দাবি করেন। এ দাবি মানা না হলে আগামী ১৩ জানুয়ারি সোমবার দেশের সকল আইনজীবী সমিতিতে খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ প্রতিবাদ কর্মসুচি পালন করার ঘোষণা দেন তিনি। লিখিত বক্তব্যে খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, তিনবারের সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে দুটি মিথ্যা মামলায় দণ্ডিত হয়ে কারাগারে আছেন। তিনি একজন বয়স্ক, অসুস্থ নারী। প্রচলিত আইনে তিনি জামিন প্রাপ্য। পিজি হাসপাতাল হতে মেডিকেল বোর্ড তার স্বাস্থ্য সম্বন্ধে যে প্রতিবেদন দিয়েছে তাতে তার বর্তমান অবস্থায় এডভান্স চিকিৎসা দরকার। কিন্তু এখন পর্যন্ত এ ব্যাপারে কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয় নাই। তিনি বলেন, আমরা মনে করি, এটা রাজনৈতিক প্রতিহিংসার চরম অভিব্যক্তি। এখানে উল্লেখ্য ফৌজদারী কারাবিধির ৪০১ (১) ধারা মোতাবেক কোন সাজার কার্যকারিতা শর্তহীনভাবে স্থগিত করার একমাত্র ক্ষমতা সরকারের হাতে। আমরা আশা করি সরকার প্রতিহিংসার পথ পরিহার করে আইনগতভাবেই চিকিৎসার জন্য খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে পারেন। এজন্য প্রয়োজন সরকারের সদিচ্ছা। তাই আমরা সরকারের নিকট অবিলম্বে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার দণ্ডাদেশ স্থগিত করে তার ইচ্ছামত দেশে কিংবা বিদেশে সুযোগ দেওয়ার দাবি জানাচ্ছি। সংবাদ সম্মেলনে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সদস্য সচিব, মো. ফজলুর রহমান খান, যুগ্ম আহবায়ক এ জে মোহাম্মদ আলী, জয়নুল আবেদীন, নিতাই রায় চৌধুরী, আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন, যুগ্ম আহবায়ক মাসুদ আহমেদ তালুকদার, ব্যারিস্টার কায়সার কামাল, আবেদ রাজা, সদস্য তৈমুর আলম খন্দকার, ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল, আব্দুল্লাহ আল মাহবুব প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here