মাসিক সম্পাদকীয়ঃ পর্ব-০১, মার্চ-২০২০ইং

লেখকঃ মোঃ হারুন অর রশীদ-সম্পাদক,আদি বাংলা নিউজ ডট কম

মোঃ হারুন অর রশীদঃ অর্ধ শতাব্দীর স্বাধীনতা । শুরু হলো স্বাধীনতার মাস ,একটি জাতির সবচেয়ে বড় গর্ব তার নিজস্ব ভূখন্ড, আর সেটা যদি হয় লাখো প্রানের বিনিময়ে, যদি হয় তা এক নদী রক্তের দামে কেনা, তাহলে তো কথাই নেই । আমাদের এই গর্বের বাংলাদেশ তো আরও ব্যতিক্রমই বটে । বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধ ছিল তৎকালীন পশ্চিম পাকিস্তানের স্বৈর শাসকদের ক্ষমতা কুক্ষিগত করে রাখার বিরুদ্ধে, বৈশম্যের বিরুদ্ধে, দুঃশাসন, অপশাসনের বিরুদ্ধে । সাড়ে সাত কোটি জনতার ১৫ কোটি হাত সেদিন একসঙ্গে গর্জে উঠেছিল বলেই , বাংলাদেশ একটি স্বাধীন দেশ হিসাবে পৃথিবীর মানচিত্রে আত্মপ্রকাশ করে। লাখো শহীদের আত্নত্যাগ, মা বোনের ইজ্জতের বিনিময়ে যে আশা প্রত্যাশা নিয়ে এই দেশ স্বাধীন হয়েছিল তা কি অর্ধ শতাব্দী পেরিয়ে গেলেও পূর্ন হয়েছে ? হয়তো অনেক কিছুই হয়েছে কিন্তু তা কত শতাংশই বা হবে ? এ জাতির মৌলিক চাহিদার অর্ধেকটাও কি পূর্ন করতে পেরেছি আমরা ? কোথায় অন্ন-বস্ত্রের সু ব্যাবস্থা, শিক্ষা, চিকিৎসা ? বাসস্থান ? বাক স্বাধীনতা,ভোটাধিকার? সুবিচার ,জান মালের নিরাপত্তা , মা-বোনের ইজ্জতের নিরাপত্তা? ইতিহাস থেকে জানা যায় ৭৫ থেকে ৮১ ছাড়া কোনো যোগ্য শাসকই মেলেনি এ জাতির ভাগ্যাকাশে। দুর্নীতিমুক্ত, স্বজনপ্রীতি মুক্ত, জনগনের চোখের ভাষা, মনের ভাষা বুঝার মত গনতন্ত্রের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, বৈষম্য দূর করার চেষ্টায়রত, এমন শাসক কবে পাবে এ জাতি ? স্বাধীনতার প্রায় অর্ধ শতাব্দী পরেও এই প্রশ্ন মনে উদয় হয় বারবার। কোথায় আমাদের ত্রুটি নেই ? নির্বাচনী ব্যবস্থা, বিচার বিভাগ, শাসন ব্যবস্থা বা প্রশাসনিক ব্যবস্থা, সর্ব ক্ষেত্রেই যেন জং ধরে আজ ধ্বংস প্রায় । রাষ্ট্রের চারটি স্তম্ভ বা খুঁটি বলা হয় সংসদ, বিচারবিভাগ, প্রশাসন এবং গনমাধ্যমকে, অথচ সেই চারটি বিভাগই বর্তমানে সবচেয়ে বেশি জীর্ণ শীর্ণ। যাইহোক আমরা চাই আমাদের দেশ হোক বিশ্ব দরবারে এক সমৃদ্ধিশালী, সভ্য, গণতান্ত্রিক শান্তির দেশ । হোক সকল ধর্মের, সকল বর্নের মানুষের জন্য এক নিরাপদ ভূখন্ড। আমরা চাইনা ,বিশ্বজিৎ, আবরার, সাগর-রুনির মত হত্যাকান্ড, চাইনা ইলিয়াস আলীর মত কেউ হারিয়ে যাক। জনগন সব সময়ের সকল শাসকের, দুঃশ্বাসনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের অধিকার এবং বাকস্বাধীনতা ফিরে পাক ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here